আন্দোলনকারী ও পুলিশের মধ্যে ধাওয়া-পাল্টাধাওয়া

কোটা সংস্কারের দাবিতে আন্দোলনকারী ও পুলিশের মধ্যে আজ সকালেও ধাওয়া-পাল্টাধাওয়ার ঘটনা ঘটেছে।

গতকাল রোববার বিকেল থেকে শুরু হওয়া এ আন্দোলনে রাতভর ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এলাকা রণক্ষেত্রে পরিণত হয়। পুলিশের লাঠিপেটা, কাঁদানে গ্যাস আর জলকামানে আহত হন অর্ধশতাধিক আন্দোলনকারী। আটক করা হয় বেশ কয়েকজনকে। এ সময় ভাঙচুর করা হয় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যের বাসভবন।

এ ঘটনার জের ধরে আজ সোমবার সকাল সোয়া ৭টার দিকে কার্জন হলের সামনে আন্দোলনকারীরা ফের জড়ো হওয়ার চেষ্টা করেন। তখন পুলিশ তাঁদের ধাওয়া দেয়। এ সময় ১০-১৫টি কাঁদানে গ্যাস নিক্ষেপ করা হয় ছাত্রদের দিকে।

এদিকে পরিস্থিতি দেখার জন্য সকাল ১০টার দিকে পুলিশের অতিরিক্ত কমিশনার দেবদাস ভট্টাচার্য কার্জন হল এলাকায় আসেন। তখন তিনি গণমাধ্যমকে বলেন, ‘ভিসির বাসভবন ভাঙচুরের ঘটনায় মামলা হবে। এখন পরিস্থিতি আমাদের নিয়ন্ত্রণে আছে।’

আমরা এখানে আছি বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনকে অবহিত করেই। আইনশৃঙ্খলা রক্ষায় যা দরকার সব করবে পুলিশ।

সরকারি চাকরিতে ৫৬ শতাংশ কোটা সংস্কার করে ১০ শতাংশে কমিয়ে আনার দাবিতে রোববার সারা দেশে সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদের আহবানে অবস্থান কর্মসূচি পালন করেছেন আন্দোলনকারীরা। রোববার দুপুর থেকে ময়মনসিংহ-ঢাকা মহাসড়ক অবরোধ করে পাঁচ দফা দাবিতে আন্দোলন করেন শিক্ষার্থীরা।

এ সময় যান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। আন্দোলনে বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়, জাতীয় কবি কাজী নজরুল বিশ্ববিদ্যালয়, আনন্দ মোহন কলেজসহ বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা অংশ নেন। ঢাকা-রাজশাহী মহাসড়ক অবরোধ করেন রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা।

 

About স্টাফ রিপোর্টার

Check Also

হেফাজতে ইসলামের আমির জুনায়েদ বাবুনগরী ইন্তেকাল করেছেন

হেফাজতে ইসলামের আমির আল্লামা জুনায়েদ বাবুনগরী ইন্তেকাল করেছেন। ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন। বৃহস্পতিবার …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *