আয়েশা ও মনীষার সঙ্গে পরকীয়া নানা পাটেকরের

নব্বই দশকের কথা তখন নীলাকান্তি পাটেকরের সঙ্গে বিবাহিত জীবন কাটাচ্ছিলেন নানা পাটেকর। ১৯৯৬ সালে ‘অগ্নিসাক্ষী’ সিনেমার শুটিংয়ের সময় অভিনেত্রী মনীষা কৈরালার প্রেমে পড়েন নানা। সেসময় নানা পাটেকরের মতো কঠিন স্বভাবের একজন ব্যক্তিত্বের সঙ্গে মনীষা কৈরালার প্রেমের খবর বলিউডের অনেককেই অবাক করে। যদিও তখন মনীষাও তার বদমেজাজী স্বভাবের জন্য বেশ বিতর্কিত ছিলেন। তবে অগ্নিসাক্ষীর শুটিংয়ের সময় নানা ও মনীষা দুজনেই একে অপরের প্রেমে হাবুডুবু খাচ্ছিলেন। সেসময় মনীষা কৈরালার প্রতিবেশীরা অনেকেই বলেছিলেন তারা নানাকে অনেক ভোরে মনীষার বাড়ি থেকে বের হতে দেখেছেন। এমনকি নানা নাকি সেসময় স্ত্রীর থেকে আলাদা থাকতে শুরু করেন। তবে মনীষার সঙ্গে সম্পর্কে থাকার কিছুদিনের মধ্যে তার উপর বিভিন্ন বিষয়ে নিষেধাজ্ঞা জারি করা শুরু করেন নানা। সে সময় সহ অভিনেতাদের সঙ্গে মনীষাকে দেখলে বা খোলামেলা পোশাকে দেখলে নানা ভীষণ রেগে যেতেন। এজন্য বিভিন্ন সময় মনীষার সঙ্গে ঝগড়াও হয়েছে নানার।

এখানেই শেষ নয়। নানা ঠিক একই সময়ে অভিনেত্রী আয়েশা জুলকারের সঙ্গে গোপনে মেলামেশা শুরু করেন। এমনকি আয়েশার ঘর থেকে নানাকে হাতে নাতে ধরেছিলেন মনীষা। শোনা যায়, সেসময় আয়েশার সঙ্গে নাকি ঘনিষ্ঠ অবস্থায় ছিলেন নানা। যে ঘটনাটি মনীষার পক্ষে মানা সম্ভব ছিল না। তিনি ভেঙে পড়েন। ক্ষুব্ধ মনীষা সেসময় আয়েশাকে গালিগালাজও করেন। যদিও নানা সে প্রস্তাব সোজা খারিজ করে দেন। আর এরপরেই নাকি মনীষার সঙ্গে সম্পর্ক ভেঙে যায় নানা পাটেকরের।

এদিকে মনীষার সঙ্গে সম্পর্ক ভাঙার পর পরই নানা পাটেকর আয়েশার সঙ্গে তার সম্পর্কের কথা প্রকাশ্যে স্বীকার করে নেন এবং আয়েশার সঙ্গে লিভ-ইন করা শুরু করেন।

About স্টাফ রিপোর্টার

Check Also

কাশিমপুর কারাগারে পরীমণি

আলোচিত নায়িকা পরীমণিকে গাজীপুরের কাশিমপুর মহিলা কেন্দ্রীয় কারাগারে আনা হয়েছে। এ সময় তাঁকে দেখতে কারাফটকের …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *