এশাকে ফুলের মালা পরালেন সাবেক ছাত্রলীগ নেতারা

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) কবি সুফিয়া কামাল হলের এক ছাত্রীকে নির্যাতন করার অভিযোগে গত মঙ্গলবার দিবাগত রাতে হল শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি ইফফাত জাহান এশাকে ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি সাইফুর রহমান সোহাগ ও সাধারণ সম্পাদক এস এম জাকির হোসাইন স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে সংগঠন থেকে বহিষ্কারের ঘোষণা দেন।

আজ বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় এশাকে ফুলের মালা পরিয়ে দেওয়ার ছবি ফেসবুকে পোস্ট করেন ছাত্রলীগের ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখার সাবেক সভাপতি মেহেদী হাসান। এ সময় আরো উপস্থিত ছিলেন ছাত্রলীগের সাবেক কেন্দ্রীয় সহসভাপতি জয়দেব নন্দী, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক হাসান তারেক এবং শামসুল কবির রাহাত, ঢাবি শাখার সাবেক সভাপতি ওমর শরীফসহ আরো অনেকে।

ওই ছবির উপরে ক্যাপশনে মেহেদী হাসান লিখেন, আমরা সাবেক ছাত্রলীগ এশার পাশে।

এর আগে গত মঙ্গলবার রাতে কোটা সংস্কার আন্দোলনে অংশ নেওয়ায় হলের এক সাধারণ ছাত্রীকে রুমে ডেকে নিয়ে মারধর করে রক্তাক্ত করার অভিযোগ উঠে এশার বিরুদ্ধে। হলের সাধারণ শিক্ষার্থীরা দাবি করেন, পায়ের রগ কেটে ওই শিক্ষার্থীকে রক্তাক্ত করা হয়। ওই ঘটনায় তাৎক্ষণিকভাবে হলের শিক্ষার্থীরা বিক্ষুব্ধ হয়ে এশাকে অবরুদ্ধ করে রাখে এবং তাঁর বিচার দাবি করে। একপর্যায়ে হলের প্রাধ্যক্ষ ও হাউজ টিউটরদের সামনেই এশার গলায় জুতার মালা পরিয়ে দেয় হলের ছাত্রীরা। এদিকে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ফেসবুকে একটি ছবি ছড়ানো হয়, এশা এক ছাত্রীর পায়ের রগ কেটে দিয়েছেন। ওই ছবি দেখে হাজার হাজার ছাত্র রাতেই সুফিয়া কামাল হলের সামনে দাঁড়িয়ে বিক্ষোভ করতে থাকে। পরে রাতেই এশাকে হল ও বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বহিষ্কারের ঘোষণা দেন উপাচার্য আক্তারুজ্জামান।

এদিকে সুফিয়া কামাল হলে সংগঠিত ঘটনা তদন্তের জন্য একটি তদন্ত কমিটি গঠন করেছে ছাত্রলীগ। ২৪ ঘণ্টার মধ্যে তদন্ত প্রতিবেদন দিতে বলে তারা।

About স্টাফ রিপোর্টার

Check Also

বরিশাল সিটি করপোরেশনের ১২ কর্মকর্তা-কর্মচারী বরখাস্ত

দুর্নীতির দায়ে বরিশাল সিটি করপোরেশনের ১২ কর্মকর্তা-কর্মচারীকে স্থায়ীভাবে চাকরিচ্যুত করা হয়েছে। গতকাল বৃহস্পতিবার রাতে তাদের …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *