খালেদা জিয়ার ফুসফুসে ‘সামান্য’ সংক্রমণ

বিএনপির চেয়ারপারসন ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়ার সিটি স্ক্যানের পূর্ণাঙ্গ প্রতিবেদন পেয়েছে তাঁর চিকিৎসক দল। গতকাল বৃহস্পতিবার মধ্যরাতে রাজধানীর বসুন্ধরায় এভার কেয়ার হাসপাতাল থেকে প্রতিবেদন পাওয়ার পর পরই ভার্চুয়ালি পর্যালোচনা করেন চিকিৎসকরা। পরে খালেদা জিয়ার জন্য সর্বসম্মতিক্রমে নতুন একটি ওষুধ যুক্ত করা হয়। বর্তমান শারীরিক অবস্থায় বাসায় রেখেই চিকিৎসা চলবে বলে জানান চিকিৎসকরা।

করোনায় আক্রান্ত হওয়ার পর দ্বিতীয় সপ্তাহ পার করছেন খালেদা জিয়া। তাই এখনো তাঁকে শঙ্কামুক্ত বলার সময় আসেনি বলে জানায় চিকিৎসক দল। যেহেতু খালেদা জিয়ার ডায়াবেটিসসহ অন্যান্য সমস্যা আছে, সেহেতু তাঁকে আগামী এক সপ্তাহ নিবিড় পর্যবেক্ষণে রাখা হবে বলে জানায় চিকিৎসক দল।

দেশে ও দেশের বাইরে বেশ কয়েকজন চিকিৎসকের সঙ্গে যোগাযোগ রক্ষা করে করোনার বৈশ্বিক চিকিৎসা পদ্ধতি মেনেই খালেদা জিয়াকে চিকিৎসাসেবা দেওয়া হচ্ছে।

বিএনপির পক্ষ থেকে জানানো হয়, গত রোববার সাবেক প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়ার করোনা পজিটিভ রিপোর্ট আসে। তখন থেকে গুলশানের বাসায় অবস্থান করছেন তিনি। তাঁর বাসার আরও কয়েকজন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। শুরু থেকেই খালেদা জিয়ার স্বাস্থ্যের দেখভাল করছেন ডা. এফ এম সিদ্দিকীর নেতৃত্বে একদল চিকিৎসক।

About স্টাফ রিপোর্টার

Check Also

হেফাজতে ইসলামের আমির জুনায়েদ বাবুনগরী ইন্তেকাল করেছেন

হেফাজতে ইসলামের আমির আল্লামা জুনায়েদ বাবুনগরী ইন্তেকাল করেছেন। ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন। বৃহস্পতিবার …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *