দুই ছাত্রী ধর্ষণের আসামি নাঈম আশরাফও গ্রেপ্তার

বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের দুই ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগে রাজধানীর বনানী থানায় করা মামলার দুই নম্বর আসামি হাসান মোহাম্মদ হালিম ওরফে নাঈম আশরাফকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

আজ বুধবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে মুন্সীগঞ্জের লৌহজং উপজেলা থেকে নাঈমকে গ্রেপ্তার করা হয়।

দুই ছাত্রীকে ধর্ষণের মামলায় এর আগে আপন জুয়েলার্সের মালিক দিলদার আহমেদের ছেলে সাফাত আহমেদ, তাঁর বন্ধু সাদমান সাকিফ, সাফাতের গাড়িচালক বিল্লাল ও দেহরক্ষী রহমত আলীকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। আজ নাঈমকে গ্রেপ্তারের মধ্য দিয়ে এই মামলার সব আসামিই আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর হেফাজতে এলো।

মুন্সীগঞ্জের লৌহজং উপজেলা থেকে পুলিশ সদর দপ্তরের একটি বিশেষ দল নাঈমকে গ্রেপ্তার করে। তাঁকে ঢাকায় আনা হচ্ছে।

জন্মদিনের পার্টিতে ডেকে নিয়ে ধর্ষণের অভিযোগ এনে গত ৬ মে বনানী থানায় মামলা করেন এক ছাত্রী। ওই মামলার এজাহার থেকে জানা যায়, গত ২৮ মার্চ রাত ৯টা থেকে পরদিন সকাল ১০টা পর্যন্ত আসামিরা মামলার বাদী এবং তাঁর বান্ধবী ও বন্ধু শাহরিয়ারকে আটক রাখেন। অস্ত্র দেখিয়ে ভয়-ভীতি প্রদর্শন ও অশ্লীল ভাষায় গালিগালাজ করেন। বাদী ও তাঁর বান্ধবীকে জোর করে ঘরে নিয়ে যান আসামিরা। বাদীকে সাফাত আহমেদ একাধিকবার এবং বান্ধবীকে নাঈম আশরাফ একাধিকবার ধর্ষণ করেন।

About স্টাফ রিপোর্টার

Check Also

হেফাজতে ইসলামের আমির জুনায়েদ বাবুনগরী ইন্তেকাল করেছেন

হেফাজতে ইসলামের আমির আল্লামা জুনায়েদ বাবুনগরী ইন্তেকাল করেছেন। ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন। বৃহস্পতিবার …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *