প্রথম ছবিতেই শারীরিক নির্যাতিত হন রেখা

বলিউড নায়িকা রেখা অনুমতি ছাড়াই তাঁকে আলিঙ্গন করে চুম্বন দৃশ্যে অভিনয় করানো হয়েছিল। যার ফলে তিনি মানসিকভাবে বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছিলেন।

ইয়াসির উসমান বিষয়টি উল্লেখ করেছেন রেখার জীবনীগ্রন্থে। ঘটনার কথা লেখক শুনেছেন খোদ অভিনেত্রীর মুখ থেকেই। ১৯৬৯ সালে ‘আনজানা সফর’ ছবিতে অভিনয়ের সময় এই ঘটনা ঘটে। ছবির নায়ক বিশ্বজিৎ চট্টোপাধ্যায় (কলকাতার অভিনেতা প্রসেনজিতের বাবা) জোর করে দীর্ঘ পাঁচ মিনিট চুম্বন করেন রেখাকে, যা মোটেও চিত্রনাট্যে ছিল না, বা রেখারও জানা ছিল না।

এই ছবিটির মাধ্যমেই বলিউডে অভিষেক হয় রেখার। তখন তাঁর বয়স ছিল মাত্র ১৫ বছর। ওই সময় তাঁর কিছুই করার ছিল না বলে তিনি চোখ বন্ধ করে থাকেন পুরো সময়। তবে তাঁর চোখ পানিতে ভরে যায়।

ইয়াসির উসমানের বইতে রয়েছে, রাজা নওয়াথে (ছবির পরিচালক) এবং বিশ্বজিৎ পুরো বিষয়টি পরিকল্পনা করেছিলেন দৃশ্য গ্রহণের ঠিক আগ মুহূর্তে। দৃশ্য গ্রহণের জন্য পরিচালক নির্দেশ দেওয়ার সঙ্গে সঙ্গে বিশ্বজিৎ রেখাকে আলিঙ্গন করে চুম্বন করতে থাকেন। রেখা এই ঘটনায় চমকে গেলেও নিজেকে ছাড়াতে পারেননি। পরিচালক ক্যামেরা রোলিং করাতে থাকেন, এ সময় কলাকুশলীরা উল্লসিত হন এবং শিষ বাজাতে থাকেন। পুরো পাঁচ মিনিট ধরে এই দৃশ্য গ্রহণ করা হয়।

পরে এই বিষয়ে বিশ্বজিৎকে জিজ্ঞাসা করা হলে তিনি পুরো ঘটনাটি পরিচালকের দিকে ঘুরিয়ে দেন। তাঁর বক্তব্য, পরিচালক এভাবেই চেয়েছিলেন যে কিশোরী রেখা যেন পুরো বিষয়টিতে একেবারে চমকে যান। এই ‘চমকে যাওয়া’ কিশোরীকে ক্যামেরায় ধারণ করাই ছিল তাঁর উদ্দেশ্য।

About স্টাফ রিপোর্টার

Check Also

কাশিমপুর কারাগারে পরীমণি

আলোচিত নায়িকা পরীমণিকে গাজীপুরের কাশিমপুর মহিলা কেন্দ্রীয় কারাগারে আনা হয়েছে। এ সময় তাঁকে দেখতে কারাফটকের …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *