বরিশালে শিশু গৃহকর্মীকে নির্মম নির্যাতন

বরিশালে ১০ বছরের এক শিশু গৃহকর্মীকে নির্মম নির্যাতনে, গুরুতর অবস্থায় হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এ ঘটনায় অভিযুক্ত গৃহবধূ আঁখিকে গ্রেফতার করা হয়েছে। পলাতক রয়েছে গৃহকর্তা আশরাফুল ইসলাম।

নির্মম নির্যাতনের শিকার এই শিশুটির নাম লামিয়া আক্তার মরিয়ম। বয়স মাত্র ১০ বছর। মা মারা গেছে, বাবা একজন রিকশা চালক। অভাবের তাড়নায় ৬ মাস আগে গৃহকর্মী হিসেবে কাজ নেয় বরিশাল নগরীর ২৯ নম্বর ওয়ার্ডের মদীনা সড়কের আশরাফুল ইসলামের বাড়িতে। পান থেকে চুন খসলেই তার ওপর চালানো হয় অমানুষিক নির্যাতন। সবশেষ সোমবার রাতে নির্যাতনের বিষয়টি জানতে পেরে তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করে গোয়েন্দা পুলিশ। গ্রেফতার করা হয় অভিযুক্ত গৃহবধূ শারমিন আক্তার আঁখিকে।

শিশু লামিয়া আক্তার জানায়, কথা শুনে নাই, কাজে ভুল হয়েছে। তারা দুজনে আমাকে মারছে। দেওয়ালের সাথে ধাক্কা দিতো। বেলুন দিয়ে মাথায় আঘাত করতো।

এদিকে, লামিয়ার চিকিৎসায় সবধরনের সহায়তার কথা জানিয়েছেন বরিশাল মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পরিচালক পরিচালক মো. রাকিব হোসেন। তিনি বলেন, শিশু নির্যাতনের বিষয়ে থানায় মামলা হয়েছে। আইনগত ব্যবস্থা নেয়ার কথা জানিয়েছে পুলিশ। সারা শরীরে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। বিশেষ করে মাথা থেকে ঘাঁড়ে চোখে, মাথায় আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। এবং সিটি স্ক্যান থেকে শুরু করে সব ধরনের সহযোগিতা করা হবে। এ ছাড়া তার আইন সহায়তা থেকে শুরু করে সব ধরনের সহযোগিতা করা হবে।

বরিশালের মেট্রোপলিটন পুলিশের সহকারী কমিশনার মো. নাসির উদ্দিন মল্লিক, আটকের পর তার বিরুদ্ধে মানব পাচার এবং শিশু আইনে মামলা করা হয়েছে এবং তাকে আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে।

নির্যাতিত লামিয়া আক্তার ময়রিয়মের বাড়ি বরিশালের গৌরনদী উপজেলার বাটাজোড়া গ্রামে।

About স্টাফ রিপোর্টার

Check Also

বরিশাল সিটি করপোরেশনের ১২ কর্মকর্তা-কর্মচারী বরখাস্ত

দুর্নীতির দায়ে বরিশাল সিটি করপোরেশনের ১২ কর্মকর্তা-কর্মচারীকে স্থায়ীভাবে চাকরিচ্যুত করা হয়েছে। গতকাল বৃহস্পতিবার রাতে তাদের …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *